চট্টগ্রামে আধুনিক সিটি স্ক্যান, হার্টের ব্লক জানা যাবে ৩ সেকেন্ডে

অনলাইন ডেস্ক★★

জার্মানির সিমেন্স কোম্পানির ১২৮ ডুয়েল সোর্স মডেলের ‘সিটি স্ক্যান’ মেশিনটি এই সময়ে হার্টের ব্লক নির্ণয়ে সর্বাধুনিক ভার্সন হিসাবে পরিচিত। ১৪ কোটি টাকা দামের এই যন্ত্র খুব সহজে বলে দিতে পারে কারো শরীরে ব্লক আছে কিনা কিংবা ২০ বছরের মধ্যে হার্টে ব্লক হওয়ার আশংকা আছে কিনা।

চর্বিজাতীয় পদার্থ জমা হতে হতে রক্তনালীর মধ্য দিয়ে রক্ত প্রবাহিত হওয়ার পথকে সম্পূর্ণ বা আংশিকভাবে বন্ধ (ব্লক) করে দেওয়াকেই হার্টে ব্লক বলা হয়ে থাকে। হার্ট অ্যাটাকে মৃত্যুর সংখ্যা বাংলাদেশে দিন দিন বাড়ছে।

একটি ইনজেকশন পুশ করে রোগীকে সিটি স্ক্যান মেশিনে প্রতিস্থাপন করানো পর স্ক্রিণে ভেসে আসবে বিস্তারিত তথ্য। তাতে সময় লাগবে মাত্র ৩ থেকে ১০ সেকেন্ড। তাছাড়া বর্তমানে হার্টের ব্লক নির্ণয়ে ‘এনজিওগ্রাম’ নামে জনপ্রিয় যে পরীক্ষাটি রয়েছে তার চেয়ে এই সিটি স্ক্যান পরীক্ষায় খরচও অনেকে কম।

বর্তমানে নামী হাসপাতালগুলো এনজিওগ্রামে ১৫ থেকে ২৫ হাজার টাকা পর্যন্ত ফি নেয়। সেই সঙ্গে রয়েছে আরো নানা পরীক্ষা-নিরীক্ষার ঝামেলা। রোগীকে এক বা দু’দিন হাসপাতালেও থাকতে হয়। জার্মানির ১২৮ ডুয়েল সোর্সের সিটি স্ক্যান মেশিনটিতে সেই সব ঝক্কি-ঝামেলা নাই। ফি লাগবে মাত্র ৬ হাজার টাকা।

চট্টগ্রামের সদ্য উদ্বোধন হওয়া ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল সংযোজন করেছে রোগ নির্ণয়ের অভাবনীয় এই প্রযুক্তি। এটা সাধারণ কোনো ক্লিনিক কিংবা ডায়াগনস্টিক সেন্টারের সিটি স্ক্যান মেশিনের মতো নয়। দেশে আর কোনো হাসপাতালে এই মেশিন নেই।

ভারতের প্রখ্যাত হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ দেবী প্রসাদ শেঠী শনিবার (১৫ জুন) হাসপাতালটির উদ্বোধন করেন। ডা. শেঠী ইমপেরিয়াল হাসপাতালে এ সিটি স্ক্যান মেশিন দেখে মুগ্ধ হন। নিজের বক্তৃতায়ও তিনি বিষয়টি তুলে ধরেন।

হাসপাতালে যোগাযোগের নম্বর ০৯৬১২-২৪৭-২৪৭, অথবা ওয়েবসাইটের মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারেন  http://ihlbd.org/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *